৩টি কাজ যা কখনই করবেন না

May 29, 2018
9587 Views

৩টি কাজ যা কখনই করবেন নাঃ

১। বিবেককে অগ্রাহ্য করাঃ “অমুক কাজটি করতে পারলে বোধহয় ভালো হতো” আর সেই সাথে সাথে করেও ফেললেন আর পরমুহূর্তেই পস্তালেন ! এমন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি যদি কখনও হয়ে থাকেন তবে অভ্যাসটা ত্যাগ করুন। বিবেক যদি বাধা দেয়, নিশ্চিত থাকুন আপনার তাতে ছোট বড় ক্ষতি ছাড়া লাভ হবে না। তাই অঘটন ঘটাবার আগেই সতর্ক হোন । ক্ষণিকের আনন্দ সারা জীবনের কান্নার কারণ হতে পারে!

২। ছোট-বড় গুলিয়ে ফেলাঃ এমন অভ্যাস অনেকের ভেতরেই থাকে। যেমন পাশের ছোট ছেলেটি বা মেয়েটি বড় হয়ে গেছে বলে তার সামনেই “অতিশয় বড় কথা বা বেমানান” কিছু কথা বলে বসলেন যা শুধুমাত্র বড়দের সামনেই মানাই ! পাশের জনের বয়সটা খেয়ালে রাখুন। যদিও তারা এখন যুবক যুবতী বা কিশোর কিশোরী তথাপি আপনার ও তাদের বয়সের ব্যবধানের ব্যাপারে তারা যথেষ্ট সতর্ক, তাই বেমানান কথা বলে তাদের সামনে নিজেকে “ব্যক্তিত্বহীন” বা “অসভ্য” করে তুলবেন না।
একই ব্যাপার প্রযোজ্য ছোটদের বেলায়ও। যা কিছু শোভনীয় নয় তা হাস্যরসের সাথে হলেও ছোট হয়ে বড়দের সামনে করা বা বলা সম্মানজনক নয়!

৩। দুর্বলতা প্রকাশ করাঃ এ কাজটি কখনই করবেন না। “অমুক জিনিসটা পারেন না, অমুক জিনিসটা কঠিন লাগে, অমুক ব্যাপারটা আপনার কাছে ভালো লাগে না “- এমন ব্যাপার গুলো লোক সম্মুখে বলে দিয়ে নিজের দুর্বলতা গুলো প্রকাশ করে দিবেন না। ভুল হলে স্বীকার করুন কিন্তু তাই বলে ” পারি না তাই ভুল হয়েছে”- এমনটা বলবেন না। গোপনে নিজের দুর্বলতাগুলো সারিয়ে তুলুন আর লোকসম্মুখে তা প্রকাশ না করে “দেখা যাক পারি কিনা বা হয় কিনা” বলে কাটিয়ে দিন। কারও সাহায্য লাগলে খুলে বলুন কিন্তু একবারেই “পারি না বলে সাহায্য চাইছি” এমনটা বলতে যাবেন না । এটি করলে আপনি অন্যের কাছে করুণার পাত্র হবেন।

সর্বদা নিজের ব্যাপারে লক্ষ্য রাখুন ।

বলা আছে-“যে নিজের সমালোচনা করতে পারে সেই সর্বাপেক্ষা বুদ্ধিমান”! তাই নিজের দোষ ত্রুটি নিজেই খুঁজে বের করুন এবং তা কাটিয়ে উঠারও চেষ্টা করুন। কোনও নিয়ম কানুন বা কারও সাহায্যের প্রয়োজন নেই । আপনাকে উন্নত করতে আপনি একলাই যথেষ্ট ! সৃষ্টিকর্তা অবশ্যই আপনাকে সাহায্য করবেন।

Author
  • leave a comment

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    * Copy This Password *

    * Type Or Paste Password Here *