রি-ডিজাইন ও রি-ব্র্যান্ডইং – বাঁচতে হলে জানতে হবে !

Oct 22, 2017
276 Views

গ্রাফিক ডিজাইন কিংবা ওয়েব ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট এর একটি বহুল জনপ্রিয় বিষয় হলও রি-ডিজাইন ও রি-ব্র্যান্ডইং । সহজ কথায় বলতে গেলে পুরাতন একটা ডিজাইন কে একটু অন্যভাবে সাজনোই হলো রি- ডিজাইন । আর রি-ব্র্যান্ডইং হলো একটি ব্র্যান্ড এর বড় কোন কিছুতে পরিবর্তন আনা। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্যে বড় বড় ওয়েবসাইট, ইকমার্স সাইট, সামাজিক -যোগাযোগ সাইট গুলোতে রি- ডিজাইন এর চর্চা দেখা যায় । মোদ্দা কথা (বটম লাইন) হলো ওয়েবসাইট/ ব্র্যান্ড কে আরও ইউজার ফ্রেন্ডলি করা, আরও যুগোপযোগী করার জন্যে রি-ডিজাইন ও রি-ব্র্যান্ডইং এর প্রয়োজন ।

রি-ডিজাইন :

ধরুন আপনার একটি ওয়েব সাইট আছে । তো আপনার মনে হলো যে আপনি একটু অন্যভাবে সাজাবেন আপানর সাইটটাকে । সেটা হতে পারে নতুন কিছু ফিচার, ফাংশন অ্যাড করা । পুরাতন কিছু ফিচার, ফাংশন এ পরিবর্তন আনা। ফন্ট, আইকন (টাইপোগ্রাফি ও আইকোনোগ্রাফি) এ পরিবর্তন আনা , ওয়েবসাইট এর লেআউট এ পরিবর্তন আনা । মোটামুটি প্রধান ভিত্তি টা ঠিক রেখে টুকটাক কিছু পরিবর্তন আনাই হলো রি-ডিজাইন । এখানে জনপ্রিয় কিছু ওয়েবসাইট এর রি-ডিজাইন এর উদাহরণ তুলে ধরা হলো :

১) ইউটিউব রি-ডিজাইন কনসেপ্ট:

জনপ্রিয় ভিডিও -শেয়ারিং ওয়েবসাইট ইউটিউব । ইউটিউব ভিসিট করেননি এমন মানুষ হয়তো খুব কমই পাওয়া যাবে । এই রি-ডিজাইন কনসেপ্ট এ দেখানো হয়েছে কিভাবে টাইপোগ্রাফি ও আইকোনোগ্রাফি তে পরিবর্তন এনে আরও সুন্দর ভাবে সাজানো যায় ওয়েবসাইট টিকে ।

Original-Version-Link       Redesign-Concept-Link

২) স্টিম রি-ডিজাইন কনসেপ্ট:

কম্পিউটার গেমার দের কাছে খুবি জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট হলো স্টিম । প্রতিদিনি হাজার-হাজার ডলারের গেমস বেচা-কেনা হয় এখানে । অসাধারন কালার কম্বিনেশন কিভাবে একটা ওয়েবসাইট এর চেহারা পাল্টে দিতে পারে তার আদর্শ উদাহরণ এই রি-ডিজাইন কনসেপ্ট ।

Original-Version-Link       Redesign-Concept-Link

রি-ব্র্যান্ডইং:

প্রথমে বুঝতে হবে ব্র্যান্ড বলতে আমারা কি বুঝি । একটা ওয়েবসাইট/ প্রতিষ্ঠান তখনি ব্র্যান্ড হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে যখন তা কিছু নিয়ম অনুসরণ করবে । যেমন ইউনিক লোগো থাকা , কিছু কালার কে মেইন কালার হিসেবে ব্যবহার করা ইত্যাদি । এখন এই মূল ভিত্তি গুলো তে পরিবর্তন আনাই হলো রি-ব্র্যান্ডইং । কিছু উদাহরণ তুলে ধরা হলো :

১) টেলিটক রি-ব্র্যান্ডইং কনসেপ্ট:

বাংলাদেশের জনপ্রিয় টেলিকম্যুনিকেশন প্রতিষ্ঠান হল টেলিটক । এই রি-ব্র্যান্ডইং কনসেপ্ট এ দেখানো হয়েছে কিভাবে টেলিটক ব্র্যান্ড এর ডিজাইন এ পরিবর্তন আনা যায় । পাশাপাশি দেশীয় অন্যান্য টেলিকম্যুনিকেশন ব্র্যান্ড এর ডিজাইন এর সাথে এর তুলনা দেখানো হয়েছে ।

Original-Version-Link      Rebranding-Concept-Link

২) বেকো রি-ব্র্যান্ডইং কনসেপ্ট:

ইউরোপ এর জনপ্রিয় ইলেক্ট্রনিক্স ব্র্যান্ড বেকো । জনপ্রিয় ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনা এর স্পন্সর হিসেবে অনেকেই হয়তো চিনে থাকবেন ব্র্যান্ড টিকে । এই রি-ব্র্যান্ডইং কনসেপ্ট এ কিভাবে এই ব্র্যান্ড এর ডিজাইন টিকে আরও উন্নত করা যায় তাই দেখানো হয়েছে ।

Original-Version-Link      Rebranding-Concept-Link

৩) ডা-ফন্ট রি-ব্র্যান্ডইং কনসেপ্ট:

আপনি যদি গ্রাফিক ডিজাইনার কিংবা ওয়েব ডেভেলপার হয়ে থাকেন তাহলে ধরে নেয়া যায় ফন্ট – ডাউনলোড করার জনপ্রিয় এই ওয়েবসাইট এর সাথে আপনি পরিচিত । খুব দরকারি এই ওয়েবসাইট টির ডিজাইন খুবই প্রাচীন আমলের । কিভাবে রি-ব্র্যান্ডইং করে একে আরও ইউজার ফ্রেন্ডলি করা যায় তাই এখানে দেখানো হয়েছে ।

Original-Version-Link      Rebranding-Concept-Link

আশা করি রি-ডিজাইন ও রি-ব্র্যান্ডইং এর ধারণাটি আমি আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানের জায়গা থেকে আপনাদের বুঝাতে পেরেছি । behance.net & dribble.com ঘাটলে রি-ডিজাইন ও রি-ব্র্যান্ডইং এর প্রচুর উদাহরণ মিলবে।

কোন প্রশ্ন করার থাকালে নিচের কমেন্ট সেকশন ব্যবহার করুন । ব্লগ টি ভালো লাগলে সবার সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না ।

হ্যাপি লার্নিং। বাঁচতে হলে জানতে হবে ।

সূত্রঃ আর আর ফাউন্ডেশন 

Author
Bangladesh Information

Bangladesh Information

"Bangladesh Information" is working on the goal of promoting Bangladesh in the world. Let's fulfill Bangladesh Information's goal, you can also raise the country with the help of the Bangladesh Information.

  • leave a comment

    Your email address will not be published. Required fields are marked *